logo
ভালো ব্যাটসম্যান হওয়ার ১০ টিপস

ভালো ব্যাটসম্যান হওয়ার ১০ টিপস

ক্রিকেট মাঠে ভালো পারফর্মেন্সের জন্য নিয়মিত অনুশীলনের বিকল্প নেই। কিন্তু, সেই অনুশীলন ঠিকঠাক হচ্ছে কী,না সেটি জানা সবচেয়ে জরুরী। আপনি হয়তো নেটে ঘন্টার পর ঘন্টা কাটিয়ে দিলেন কিন্তু, নিজের ভুল কিংবা দূর্বলতা নিয়ে কোন কাজ করলেন না। তাহলে কিন্তু অনুশীলন থেকে কোন ভালো ফল পাওয়া সম্ভব। দক্ষিণ আফ্রিকা, ওয়েস্ট ইন্ডিজ ও বাংলাদেশ দলের সাবেক হেড কোচ ইংল্যান্ডের রিচার্ড পাইবাস দিয়েছেন ব্যাটসম্যানদের জন্য ১০ টিপস। ‘খেলবেই বাংলাদেশ’র তরুন ব্যাটসম্যানদের জন্য তা তুলে ধরছি। 

টিপস ০১: বলের উপর তীক্ষ্ণ নজর কিংবা মনযোগ রাখুন

অধিকাংশ ব্যাটসম্যান ব্যাটিং করার সময় বলের উপর ফোকাস ধরে রাখতে পারে না। তাই অনেক সময় বলের লাইনে যেতে পারেননা। বোলার যখন বল করার জন্য বোলিং ক্রিজে প্রবেশ করবে, তখনই আপনি বোলারের হাতে থাকা বলের প্রতি নজর রাখবেন। শুধু বলের উপর নজর থাকবে। আশেপাশে আর অন্য কিছু, এমনকি বোলারকেও আপনি দেখবেন না। শুধু বলই আপনার নজরে থাকবে। এতে আপনি বুঝতে পারবেন বলের গতি-প্রকৃতি।

 

এই টিপসটি যারা যত ভালভাবে রপ্ত করতে পারে তারাই সেরা ব্যাটসম্যান হিসেবে আত্মপ্রকাশ করতে পারে।বর্তমান সময়ে এর সেরা উদাহরণ ভিরাট কোহলি। আপনি যদি লক্ষ্য করেন তবে দেখবেন, ভিরাট কোহলি বলের উপর থেকে একদমই চোখ সরায় না। সে বলকে আরও ভালভাবে দেখার চেষ্টা করে। আর এ কারণেই সে অন্য যে কোন ব্যাটসম্যানের তুলনায় যে কোন বলকেই ভালভাবে খেলতে পারে।

 

অবশ্যই এ গুণটি একদিনে রপ্ত করতে পারবেন না। এটি রপ্ত করতে হলে আপনাকে নেটে এই অনুশীলন চালিয়ে যেতে হবে। প্রথম ২-১ দিন হয়তো আপনার কষ্ট হবে এবং আপনি হয়তো কোন পার্থক্য খুঁজে পাবেন না। কিন্তু কয়েক দিন পরই আপনি পার্থক্য খুঁজে পাবেন।

টিপস ০২: সঠিক স্ট্যান্স ও ব্যাটিং পজিশন 

স্ট্যান্সে দাঁড়িয়ে আপনার মাথাকে সোজা সামনের দিকে রাখুন। আর ইতিবাচক মনোযোগ দিন নিজের ব্যাটিংয়ের প্রতি, রান করার প্রতি। দৃঢ়ভাবে দাঁড়িয়ে থাকুন আর সামনের দিকে তাকান।এক বল এক বল করে খেলার চিন্তা করুন। প্রতিবলেই রান করতে হবে এমন কোন কথা নেই।আপনি আপনার শক্তি সঞ্চয় করুন, আপনার শক্তি ব্যাটের মাধ্যমে বলের মধ্যে ছড়িয়ে দিতে হবে।

স্ট্যান্স নিয়ে গুরুত্বপূর্ণ টিপস দিয়েছেন বাংলাদেশ দলের সাবেক অধিনায়ক ও কোচ রাজিন সালেহ। ভিডিওটি দেখে আপনার স্ট্যান্স ঠিক করে নিতে পারেন। 

টিপস ০৩: ফিল্ডার না ব্যাটিংয়ের সময় মাঠের ফাঁকা জায়গা খুঁজুন 

ফিল্ডারের দিকে তাকাবেন না, মাঠের ফাঁকা জায়গার দিকে তাকান। আপনি যদি ফিল্ডারের দিকে তাকান, তখন আপনার মাথায় চিন্তা আসবে, “এখানে তো অনেক ফিল্ডার আছে। আমি গ্যাপে বল পাঠাতে পারব না। ফিল্ডাররা অনায়াসে আমাকে আটকে দেবে। আমি গ্যাপ খুঁজে পাচ্ছি না”। আপনি তখন স্বাভাবিকভাবে খেলতে পারবেন না।বরং গ্যাপের দিকে বা ফাঁকা জায়গার দিকে লক্ষ্য করুন। যখন গ্যাপ বা ফাকা জায়গা আপনার চোখে থাকবে, তখন মনে হবে-“আমি গ্যাপ দেখতে পাচ্ছি, আমি গ্যাপে বল পাঠিয়ে অনায়াসেই রান তুলতে পারব”। তখন দেখবেন আপনি ঠিকই রান করতে পারছেন।

আর অবশ্যই আপনি মাঠের যেদিকে সবচেয়ে বেশি রান করতে পারবেন বা মাঠের যে অংশটি আপনার শক্তির জায়গা (সেটা হতে পারে অফ সাইড, হতে পারে অন সাইড, হতে পারে লং অন) সে জায়গার গ্যাপের দিকেই বেশী নজর দিন।

টিপস ০৪: ব্যাটিংয়ের সময় ছোটছোট লক্ষ্য/টার্গেট নির্ধারণ করুন 

সব ব্যাটসম্যানই স্বপ্ন দেখেন ব্যাটিংয়ে নেমেই সেঞ্চুরি করে ফেলবেন। আপনি ১০০ রানের দিকে যে যাত্রা শুরু করেছেন, কোনো না কোনো এক বলে সেই মাইলফলকে পৌছে যাবেনই।গুরুত্বপূর্ণ হল আপনাকে ছোট ছোট লক্ষ্য স্থির করে এগোতে হবে। ধরুন, আমি প্রথমে দশ রান করব বা ১০ বল খেলব এমন চিন্তা করতে হবে।প্রথমেই ভাববেন না যে আমি আজ সেঞ্চুরি করব। আপনি কিন্তু পরের বলেই আউট হতে পারেন। তাই সেঞ্চুরির দিকে নজর না দিয়ে পরের বলটি ভালভাবে খেলার প্রতি নজর দিন।ছোট ছোট লক্ষ্যে এগিয়ে গেলে বড় লক্ষ্য অর্জন হয়ে যাবে অনায়াসেই।

টিপস ০৫: সিঙ্গেল নেয়ার অভ্যাস করুন/অন স্ট্রাইকের চেয়ে অফস্ট্রাইকের প্রতি মনযোগ দিন

অন-স্ট্রাইকে থাকার দিকে মনোযোগ না দিয়ে অফ-স্ট্রাইকে থাকার দিকে মনোযোগ দিন।অর্থ্যাৎ, ব্যাটিং করার চাইতে বিপরীত প্রান্তে থাকার চেষ্টা করুন। প্রথমবার শোনায় ব্যাপারটা আপনার কাছে নেতিবাচক মনে হতে পারে।কিন্তু চিন্তা করুণ, অন-স্ট্রাইক থেকে অফ-স্ট্রাইকে যেতে হলে আপনাকে সিঙ্গেল নিয়ে অফ-স্ট্রাইকে যেতে হবে, এতে আপনার একটি রান হয়ে গেল। এভাবে যতবার অফ-স্ট্রাইকে যাবেন আপনার রান তত বাড়বে।তাই সিঙ্গেল নেয়ার প্রবণতা তৈরী করুন। নেটে প্র্যাকটিস করুন কিভাবে আরও সহজে সিঙ্গেল নেয়া যায়।

টিপস ০৬: নিজের শক্তিমত্তা/স্ট্রং জোন জানুন

নিজের শক্তিমত্তা অনুযায়ী খেলুন।আপনি সবচেয়ে ভাল যেভাবে খেলতা পারেন, সেভাবেই খেলুন।আপনি যদি ফ্রন্টফুট বা সামনের পায়ে ভাল খেলতে পারেন তবে সামনের পায়েই খেলুন।আপনি যদি ব্যাক-ফুট বা পেছনের পায়ে ভাল খেলতে পারেন তবে ব্যাকফুটেই খেলুন।

টিপস ০৭: নিজের ফর্ম হারালে বেসিক/মৌলিকে ফিরে যান 

ক্রিকেটে এটা খুবই কমন একটা বিষয়। অনেক বড় ব্যাটসম্যানও তাঁর ফর্ম হারাবেন আবার ফর্মে ফিরবেন। তবে, ফর্মে ফিরতে হলে অবশ্যই নিজের বেসিক/মৌলিক জ্ঞানে ফিরে যেতে হবে। 

অর্থ্যাৎ সেখান থেকে শুরু করেছেন, ব্যাটিংয়ের সেই মৌলিক ব্যাপারগুলোর প্রতি আবার নজর দিন।কিভাবে খেলবেন ঠিক করে নিন, আপনার শক্তিমত্তা সম্পর্কে জেনে নিন। এরপর নেটে যান। আপনি যে শটটি সবচেয়ে ভাল পারেন সেই শটটি করতে থাকুন। কেউ আপনার সবচেয়ে প্রিয় পজিশনে বল করবে আর আপনি আপনার সবচেয়ে প্রিয় শটটি করতে থাকবেন। যখন মনে হবে এই বলে এই শটটা আমি খুব ভালভাবে করতে পারি তখন একইভাবে আপনার দ্বিতীয় প্রিয় শটে প্র্যাকটিস করুন।দ্বিতীয় প্রিয় শটও যখন খুব ভালভাবে আয়ত্বে চলে আসবে তখন আপনার তৃতীয় প্রিয় শটে প্র্যাকটিস করুন। এভাবে প্র্যাকটিস করে যান।

টিপস ০৮: নিজের ব্যাটিংয়ের খুঁত খুজবেন না 

কোচিংয়ের একটা টার্ম আছে KISS (Keep It Simple Sid) 

মনে রাখবেন, ম্যাচে আপনার কাজ হচ্ছে রান করে যাওয়া। নিজের ব্যাটিংয়ের  খুঁত বের করে আত্মবিশ্বাস কমানো আপনার কাজ নয়।আপনি সহজে যেভাবে ব্যাটিং করতে পারেন, যেখানে ব্যাটিং করতে পারেন করে যান আর রান তোলায় ব্যস্ত থাকুন।

আর একটি ব্যাপার অবশ্যই মনে রাখবেন, যে শটগুলো আপনি খুব ভাল করতে পারেন ঐ শটগুলোই ম্যাচে করুন।যে শটগুলো আপনি খুব একটা ভাল পারেন না এই শটগুলো যথাসম্ভব ম্যাচে না করার চেষ্টা করুন।

টিপস ০৯: আপনার বডি পজিশন/শারীরিক অবস্থান নিখুঁত করুন 

ক্রিজে আপনার শরীরের পজিশনের খুব ক্ষুদ্র একটি ত্রুটির কারনে আপনি কাংখিত সাফল্য নাও পেতে পারেন। আপনার স্ট্যান্স বা ক্রিজে দাড়ানোর ভঙ্গি, ব্যাটের গ্রিপ, আর ব্যাট কিভাবে ঘোরাচ্ছেন এই ব্যাপারে অবশ্যই নজর দিতে হবে। কোন ত্রুটি খুঁজে পেলে শুধরে নিতে হবে। 

নিশ্চিত করুন ব্যাটিংয়ের সময় আপনার শরীরের ভারসাম্য ঠিক আছে কিনা, আপনার মাথা সোজা বোলারের দিকে আছে কিনা।নিশ্চিত হয়ে নিন আপনার ব্যাটের গ্রিপ ঠিক আছে কিনা যাতে আপনি অনায়াসে ব্যাটকে এদিক-সেদিক ঘোরাতে পারেন।আর অবশ্যই নিশ্চিত হয়ে নিন ব্যাট ঘোরানোর সময় বলের লাইনে আপনি সঠিক সময়ে ব্যাট নিয়ে যেতে পারছেন কিনা। নেটে প্র্যাকটিস করুন নিজের প্রিয় শট, নিজের অপ্রিয় শট, সব।

বাংলাদেশ দলের সাবেক অধিনায়ক মিনহাজুল আবেদিন নান্নু ব্যাটের গ্রিপ ধরার কৌশল নিয়ে ভিডিও টিপস দিয়েছেন চাইলে সেটি দেখে নিতে পারেন। 

টিপস ১০: নিজেকে ক্লান্ত মনে করলে রিল্যাক্স হউন 

লম্বা সময় ক্রিজে থাকলে কিংবা টানা কঠিন বল ফেস করলে মানসিক অবসাদে পড়তে পারেন। ব্যাটিং করতে করতে যদি ক্লান্ত হয়ে পড়েন তবে কিছুক্ষণের জন্য রিলাক্স হয়ে নিন।পরবর্তী বলের পূর্বে কিছুক্ষণ হাটাঁহাটি করতে পারেন, লম্বা শ্বাস নিতে পারেন। তারপর আবার নিজের স্ট্যান্সে দাড়ান। আর পরবর্তী বল মোকাবেলা করুন।